কঠোর লকডাউন,হাট বাজারে নেই ক্রেতা,হতাশায় মাক্স বিক্রেতা

মোঃ নুরনবী সরকার || ২০২১-০৪-১৪ ১৭:৩৬:২১

image
আজ পহেলা বৈশাখ,১৪২৮ বঙ্গাব্দ,রোজ বুধবার।বাংলা ঋতুতে বর্ষ বরণ।বৈশাখ মানে ঝড়,বৈশাখ মানে খরা।কিন্তু সব কিছূকে ছাপিয়ে এখন,আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হলো,করোনা মহামারী।মানুষ থেকে শুরু করে সবখানে আজ অজানা আতঙ্ক।প্রকৃতিতে বিষষ্ণতা।সব আনন্দ মলিন।এই মহামারী থেকে উত্তোরনে চলছে ব‍্যাপক গবেষণা।দেশে দেশে চলছে স্বাস্থ সচেতনতা।মুক্ত মানবজীবন আজ বন্দি চারদেয়ালে।জীবন বাঁচাতে গ্রহন করতে হচ্ছে,মাক্স,হ‍্যান্ড ওয়াস,হ‍্যান্ড স‍্যানিটাইজার,সামাজিক দুরুত্ব ও প্রতিষেধক টিকা।মানতে হচ্ছে সরকারি বিধিনিষেধ।সমগ্র বাংলাদেশে চলছে ৭ দিনের লকডাউন।করোনার প্রকোপ বেরে যাওয়ায় সরকারি এই সিদ্ধান্ত।জনগনের জান ও মালের কথা ভেবে নেয়া হয়েছে বিভিন্ন পদক্ষেপ।জনসাধারণের চলাফেরায় করা হয়েছে বিধিবিধান আরোপ।বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে না যেতে বলা হয়েছে।মাক্স ব‍্যবহার বাধ‍্যতামুলক করা হয়েছে।আর এজন‍্য অনেকেই স্বাস্থবিধি মেনে মাক্স সরবরাহ করে যাচ্ছে।শহরে ও গ্রামে বিভিন্ন হাটে ঘাটে ও পথে বিক্রি হচ্ছে এই মাক্স।এক দিকে কেউ ঘরে বসে পাচ্ছে মাক্স,অন‍্যদিকে কেউ মাক্স বিক্রি করে করছে জীবিকা নির্বাহ।আবার কেউ কেউ মাক্স পরতে অনিহা করলেও বিক্রেতারা ছুটে যাচ্ছে দাঁড়ে দাঁড়ে।ছবিটি কচাকাটা বাজারে টাওয়ার রোডের।সরকারী ঘোষনা মেনে সকলে বাড়িতে নিরাপদ স্থানে থাকছে।তাই সরকগুলো জনশুন‍্য।ক্রেতার অভাবে,মাক্স বিক্রেতা ঘুরে বেড়াচ্ছে।কথা হয় তার সাথে।তুলে ধরেন বিভিন্ন বিষয়ে ও মাক্স ব‍্যবহারের উপকারিতা।কিন্তু চোখে মুখে হতাশার ছাপ।বলেন,মাক্স বিক্রি করে সংসার চলে।পাশাপাশি চেনা জানা মানুষগুলোর খোঁজ খবর নেয়া যায়।কিন্তু করোনার বিস্তার বেরে যাওয়ায়,বাইরের মানুষ আজ ঘরবন্দি।তাই বিক্রি কম।শেষে বলেন,তবুও করোনা হতে মহান আল্লাহ্,আমাদের ক্ষমা করুক।

সম্পাদক : জাকারিয়া হোসেন জোসেফ, প্রধান সম্পাদক : মাইদুল মিয়া মাইদুল, বার্তা সম্পাদক : উমেদ আলী, সহকারী বার্তা সম্পাদক : সাজু আহমদ, বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপনায় : ঈদু খাঁন

অফিস :  জালালবাদ আবাসিক এলাকা, সিলেট-৩১০০, মোবাইল : 01711145909, ইমেইল : jknews33@gmail.com

উপদেষ্টা: